আফ্রিকান এবং অন্যান্য ধর্ম

আফ্রিকান ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ধর্ম

পৃথিবীর প্রতিটি দেশেই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রয়েছে যাদের রয়েছে আলাদা ধর্মবিশ্বাস। মূলধারার ধর্মগুলোর ভেতরে এগুলোকে অনেক সময় ফেলা যায় না। অন্যন্য অঞ্চলের মত আফ্রিকার বিভিন্ন জাতির মধ্যে এরকম আলাদা আলাদা বিশ্বাস প্রচলিত আছে এবং আগেও ছিল।

আফ্রিকান নৃ-গোষ্ঠীর ধর্মের বৈশিষ্ট্য

কিছু বৈশিষ্ট্য না বললে পুরো ব্যাপারটা আপনাদের কাছে স্পষ্ট হবে না। এমন কিছু বৈশিষ্ট্য হচ্ছে-

  • পূর্বপুরুষের আত্মার মাধ্যমে স্রষ্টাকে সন্তুষ্ট করার রীতি
  • পশু, পাখি, শাকসবজি এগুলো পূর্বপুরুষকে উৎসর্গ করা
  • অনেকে মনে করেন বাস্তব জগত চক্রাকারে আবর্তিত হয়। নতুন শিশুর জন্ম এবং বৃদ্ধদের মৃত্যুর মাঝে যোগসূত্র আছে
  • চাঁদ, তারা, গ্রহ, নক্ষত্র এগুলোকে পবিত্র কোন শক্তি মনে করা

এরকম আরো বিভিন্ন রকম বিশ্বাস বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর মধ্যে আলাদা আলাদাভাবে রয়েছে, আবার এগুলোর মাঝে অনেক মিলও আছে।মধ্য আফ্রিকা, পূর্ব আফ্রিকা, পশ্চিম আফ্রিকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, উত্তর আফ্রিকা সব জায়গার বিশ্বাসের আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

আফ্রিকার কথা যখন হচ্ছে, তখন মিসরকে অগ্রাহ্য করি কিভাবে। মিসরীয় ফারাওরা এক বিশেষ ধরণের বিশ্বাসে বিশ্বাসী ছিলেন। রাজারা অনেকেই নিজেদের স্রষ্টার অংশ মনে করতেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *